মেনু নির্বাচন করুন
পাতা

পটভূমি

পটভূমি

গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয়ের আওতাধীন সড়ক ও জনপথ অধিদপ্তর (সওজ) এর রংপুর জোন/বগুড়া সার্কেল এর অধীন “গাইবান্ধা সড়ক বিভাগ” ১৯৯৪ খ্রিঃ সনে প্রতিষ্ঠিত হয়। গাইবান্ধা সড়ক বিভাগের আওতায় গাইবান্ধা এবং পলাশবাড়ী সড়ক উপ-বিভাগ রয়েছে। এ সড়ক বিভাগের মোট সড়ক ১৪টি এবং মোট দৈর্ঘ্য ২৪০.০০ কি.মি.। তন্মধ্যে ১টি জাতীয় মহাসড়ক, দৈর্ঘ্য ৩৩.০০ কি.মি., ২টি আঞ্চলিক মহাসড়ক, দৈর্ঘ্য ৩৫.০০ কি.মি. এবং ১১টি জেলা সড়ক, দৈর্ঘ্য ১৭২.০০ কি.মি. রয়েছে। সড়কসমূহ গাইবান্ধা জেলার ৭টি উপজেলা এবং বিভাগীয় শহর রংপুর এবং দিনাজপুর জেলার বিভিন্ন উপজেলায় বিস্তৃত। অত্র বিভাগাধীন জাতীয় মহাসড়ক বগুড়া-রংপুর (এন-৫) বিভাগীয় শহর রংপুর তথা সমগ্র উত্তরাঞ্চলের সাথে ঢাকার যোগাযোগের ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করছে।

 

মাননীয় সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রী, স্থানীয় সংসদ সদস্যবৃন্দ, স্থানীয় জনগণ, প্রশাসনের সার্বিক সহযোগিতায় এবং মন্ত্রনালয়ের নিবিড় তত্ত্বাবধায়নে বার্ষিক উন্নয়ন কর্মসূচী (এডিপি) এর আওতায় বর্তমান সরকারের গৃহীত উন্নয়ন কার্যক্রমসমূহের সফল বাস্তবায়নের ফলে গাইবান্ধা সড়ক বিভাগের আওতাধীন সড়ক অবকাঠামোর অবস্থা বর্তমানে উন্নততর ও যুগোপযোগী হয়েছে। বোনারপাড়া-জুম্মারবাড়ী-সোনাতলা সড়কে বাঙ্গালী নদীর উপর মেলান্দহ সেতু, গাইবান্ধা-গোবিন্দগঞ্জ-নাকাইহাট সড়কের করতোয়া নদীর উপর বড়দহ সেতু, গোবিন্দগঞ্জ-ঘোড়াঘাট-বিরামপুর-ফুলবাড়ী-দিনাজপুর আঞ্চলিক মহাসড়কে খুলশী সেতু, পলাশবাড়ী-গাইবান্ধা সড়কের সাকোয়া সেতু, সাদুল্যাপুর-লক্ষ্মীপুর সড়কে ঘাঘট নদীর উপর ঘাঘট সেতু, বোনারপাড়া-উল্ল্যাসোনাতলা সড়কে উল্ল্যাসোনাতলা সেতু, গাইবান্ধা-সুন্দরগঞ্জ-পীরগাছা সড়কে দাড়িয়াপুর সেতু নির্মাণ, গাইবান্ধা-বালাসীঘাট সড়ক প্রশস্তকরণ ও উন্নয়ন, গোবিন্দগঞ্জ-ঘোড়াঘাট-বিরামপুর-ফুলবাড়ী-দিনাজপুর আঞ্চলিক মহাসড়ক (গাইবান্ধা অংশ) উন্নয়ন, জেলাসড়ক উন্নয়ন প্রকল্প (রংপুর জোন) এর আওতায় গাইবান্ধা-সাদুল্যাপুর সড়ক এবং পলাশবাড়ী-ঘোড়াঘাট সড়ক উন্নয়ন অত্র সড়ক বিভাগের উল্লেখযোগ্য অর্জন। সড়ক অবকাঠামো নিরাপদ, সাশ্রয়ী ও আরো উন্নততর করার লক্ষ্যে অত্র দপ্তরের কর্মকর্তা/কর্মচারীগণ নিষ্ঠার সাথে কাজ করে যাচ্ছে এবং আশা করা যায়, অদূর ভবিষ্যতে অত্র জেলার সড়ক অবকাঠামো সমগ্র বাংলাদেশের সব জেলার মধ্যে অনন্য দৃষ্টান্তরূপে স্থান করে নিবে।

ছবি


সংযুক্তি


সংযুক্তি (একাধিক)



Share with :

Facebook Twitter